স্পেসএক্স রকেট বিস্ফোরণে ফেসবুক স্যাটেলাইট ধ্বংস

স্পেসএক্স রকেট, স্যাটেলাইট, ফেসবুক স্যাটেলাইট, মার্ক জাকারবার্গ, কৃত্রিম উপগ্রহ

স্পেসএক্স রকেট বিস্ফোরণ এর সময় ফেসবুকের স্যাটেলাইট ধ্বংস হয়ে যাওয়ার কারণে মার্ক জাকারবার্গ দুঃখ প্রকাশ করেছেন। মার্ক জাকারবার্গ আশা করেছিল নতুন যে অ্যাকুইলা কৃত্রিম উপগ্রহ (স্যাটেলাইট) বর্তমানে যোগাযোগ হীন এলাকা গুলোর মানুষের জন্য ইন্টারনেট সরবরাহ করতে পারবে। কিন্তু বিস্ফোরণ এর সময় পেলোডটি হারিয়ে যায় এবং স্পেসএক্স এর উপর থাকা সবকিছু নষ্ট হয়ে যায়।

স্যাটেলাইট ধ্বংস হয়ে যাওয়ার খবর শুনে ফেসবুকের সহ প্রতিষ্ঠাতা খুবই হতাশা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন স্যাটেলাইটটি তৈরি করা হয়েছিল ইসরায়েলি একটি প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে। এই স্যাটেলাইটটির উদ্দেশ্য ছিল আরো মানুষকে ইন্টারনেট ও ফেসবুকের সাথে সংযুক্ত করা।

মার্ক জাকারবার্গ লিখেন, আমি এখন আফ্রিকায় আছি, আমি গভীর ভাবে হতাশ আমাদের স্যাটেলাইট এর ধ্বংসের খবরটা শুনে। স্যাটেলাইটটি অনেক উদ্যোক্তা এবং এই মহাদেশের প্রত্যেককেই সংযুক্ত রাখতে পারতো।

তিনি আরও লিখেন, সৌভাগ্যবশত আমরা অ্যাকুইলার মত অন্য প্রযুক্তি তৈরি করছিলাম মানুষকে যুক্ত রাখতে। আমরা সবাইকে সংযুক্ত রাখার লক্ষ্যে এখনো দৃঢ়। আর আমরা আমাদের কাজ অব্যাহত রাখব যতদিন পর্যন্ত না প্রত্যেকে এই স্যাটেলাইটের সুবিধা উপভোগ করে।

এই বিস্ফোরণটিকে মহাকাশ প্রকৌশলীদের অনিয়মের কারণ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত বিস্ফোরণের সঠিক কারণ সম্পর্কে পরিষ্কার কোন কারণ খুঁজে পাওয়া যায়নি। এই দুর্ঘটনায় কেউ আহত বা নিহত হয়নি কিন্তু প্রচুর আর্থিক ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মার্ক জাকারবার্গ উল্লেখ করেছিলেন যে, এই দুর্ঘটনায় প্রচুর আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। এজন্য তার এক ফলোয়ার জিজ্ঞেস করেছিলে, এই জিনিসের উপর কি ধরণের বিমা করা হয়েছিল?

উত্তরে মার্ক জাকারবার্গ বলেন, এক্ষেত্রে অর্থটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় না, গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে মানুষকে সংযুক্ত করতে আরো অনেকটা সময় লেগে যাবে। সূত্রঃ ইনডিপেনডেন্ট

Tags: , , , , ,

Related posts

Leave a Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.




Top