ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ভিজিটর বাড়ানোর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ কিছু টিপস

ব্লগ, ওয়েবসাইট, ভিজিটর, ট্রাফিক, ওয়েবসাইটে ভিজিটর বাড়ানোর পদ্ধতি, ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বাড়ানোর পদ্ধতি, গেস্ট ব্লগিং, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট, ই-মেইল মার্কেটিং, সাবস্ক্রাইব অপশন, ল্যাঙ্গুয়েজ ট্রান্সলেটর, কমেন্ট অপশন, ফোরামে অংশগ্রহণ, লিংকডইন আ্যনসার, ইয়াহু আ্যনসার

ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে অর্থ উপার্জন করার প্রধান শর্ত হচ্ছে ভিজিটর বা ট্রাফিক। যত বেশি পরিমাণে লোকজন আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট ভিজিট করবে, ততো বেশি পরিমাণে বাড়বে আপনার অর্থ উপার্জন করার সম্ভাবনা। এজন্য ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ভিজিট বাড়ানোর জন্য কিছু পদ্ধতি সম্পর্কে অবশ্যই আপনার জ্ঞান থাকা আবশ্যক। এই পদ্ধতি গুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ভিজিটর বা ট্রাফিকের পরিমাণ বাড়াতে পারবেন।

গেস্ট ব্লগিংঃ

ইতিমধ্যেই আমাদের দেশে বিভিন্ন ধরনের অনেক প্রতিষ্ঠিত ব্লগ বা ওয়েবসাইট রয়েছে এবং এদের পাঠক সংখ্যাও প্রচুর। এই সব ব্লগ বা ওয়েবসাইটে অতিথি লেখক হিসেবে, অ্যাকাউন্ট তৈরি করে কিছু ভাল ভাল পোস্ট লেখার চেষ্টা করুন এবং অন্যদের পোস্টেও মন্তব্য করুন। এইসব পোস্ট এবং মন্তব্যে অবশ্যই আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিঙ্কটি যোগ করে দিন। বর্তমানে গেস্ট ব্লগিং ওয়েবসাইটে ভিজিটর বা ট্রাফিক বাড়ানোর ক্ষেত্রে অন্যতম জনপ্রিয় একটি মাধ্যম।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংঃ

ফেসবুক, টুইটার, গুগল প্লাস, লিংকডইন, পিন্টারেস্ট ইত্যাদি জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলোতে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের নামে পেজ খুলুন, পাশাপাশি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের কিছু কন্টেন্ট এবং লিংক সেখানে শেয়ার করুন। এছাড়া নিজ আইডির স্ট্যাটাস সেকশনে বেশ কিছু ভাল লেখা বা পোস্ট করুন এবং এর সাথে ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিংক দিয়ে দিন। প্রয়োজন বোধে অর্থের বিনিময়ে সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলোতে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলো ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ভিজিটর বা ট্রাফিক বাড়ানোর অন্যতম একটি প্রধান উৎস।

সাবস্ক্রাইব অপশনঃ

আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে সাবস্ক্রাইব অপশন বা বাটন যুক্ত করুন। এবার আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে প্রয়োজনীয়, সাহায্যকারী এবং আকর্ষণীয় কিছু আর্টিকেল বা পোস্ট লিখতে থাকুন। এর ফলে বেশ কিছু ভিজিটর আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে সাবস্ক্রাইবারে পরিণত হবে। আপনি যখন আপানার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে নতুন কোন আর্টিকেল বা পোস্ট পাবলিশ করবেন, তখন আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের সাবস্ক্রাইবাররা ইমেইল এর মাধ্যমে অটোমেটিক আপডেট পেয়ে যাবে এবং আপানার ব্লগ বা ওয়েবসাইট ভিজিট করবে।

ই-মেইল মার্কেটিংঃ

সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর পাশাপাশি নিয়মিত আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ভিজিটর বা ট্রাফিক বাড়ানোর জন্য অবশ্যই আপনাকে ই-মেইল মার্কেটিংয়ের কাজটি করতে হবে। সাবস্ক্রাইবার ছাড়াও অন্যান্য সকল সম্ভাব্য পাঠকদের নিয়মিত আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের নতুন আর্টিকেল বা কন্টেন্ট সম্পর্কে ইমেইল করুন। এর ফলে তারা নিয়মিত আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের পাঠকে পরিণত হবে।

ল্যাঙ্গুয়েজ ট্রান্সলেটরঃ

ধরা যাক আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটি বাংলায় লেখা। এতে এমন অনেক বিষয়ের উপর লিখেছেন যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেই ক্ষেত্রে কিছু বিদেশি পাঠক অবশ্যই আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে আকৃষ্ট হতে পারে। তবে এইসব বিদেশী পাঠকদের জন্য আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ল্যাঙ্গুয়েজ ট্রান্সলেটর যুক্ত করতে হবে। বিভিন্ন ধরনের ফ্রি এবং পেইড ট্রান্সলেটর প্লাগিন রয়েছে যেটি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ব্যবহার করলে, যেকেউ তার পছন্দের ভাষা অনুযায়ী আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট গুলো পরিবর্তন করে পড়তে পারবে। এছাড়াও গুগল ট্রান্সলেটর যুক্ত করেও আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে সহজেই পেয়ে যেতে পারেন কিছু বিদেশি পাঠক।

কমেন্ট অপশনঃ

আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের পোস্ট গুলো এমন ভাবে লেখার চেষ্টা করুন, যাতে পাঠক কমেন্ট করতে আগ্রহ বোধ করে। হতে পারে আপনার লেখা সম্পর্কে পাঠকের প্রশ্ন, উত্তর, মতামত অথবা আপনার লেখা সম্পর্কিত আরো কিছু তথ্য যা তাদের কাছে আছে, যদি থাকে তাহলে সেই তথ্য গুলো কি কি ইত্যাদি। পাঠকের এই সমস্ত মন্তব্যের উত্তর দিন, আরেকটা বিষয় অবশ্যই পাঠককে ধন্যবাদ জানাতে ভুলবেন না। এর ফলে পাঠক নিয়মিত আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে আসতে আগ্রহ পাবে।

ফোরামে অংশগ্রহণঃ

অনেকেই আছে যারা কোন বিষয়ে পরামর্শের জন্য সর্বপ্রথমেই বিভিন্ন ফোরামে চোখ রাখে। এজন্য ফোরাম হতে পারে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট প্রমোট করার অন্যতম একটি ক্ষেত্র। এক্ষেত্রে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট এর সাথে মিল আছে এমন কিছু ফোরামে যোগ দিন, বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিন, কমেন্ট বা মন্তব্য পোস্ট করুন এবং আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিংক সেখানে যুক্ত করুন। এভাবে খুব সহজেই আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে বেশ কিছু ভিজিটর বা ট্রাফিক পেয়ে যাবেন।

লিংকডইন ও ইয়াহু আ্যনসারঃ

লিংকডইন এবং ইয়াহু আ্যনসার এ চোখ রাখুন। পেয়ে যেতে পারেন এমন অসংখ্য প্রশ্ন যার সম্পর্কে আপনার ভাল ধারণা আছে। সেই সমস্ত প্রশ্নে গুলোর উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন। আর আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট আর সাথে সম্পর্ক আছে এমন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের লিংক দিয়ে দিবেন। এই সমস্ত প্রশ্ন এবং উত্তর গুলো দীর্ঘদিন ধরে অসংখ্য পাঠকের চোখে পড়ে এবং এর থেকে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটে পেয়ে যাবেন বেশ কিছু ভিজিটর বা ট্রাফিক।

Tags: , , , , , , ,

Related posts

Leave a Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.




Top